1. admin@netroalapon.com : admin :
  2. raihafntinv@gmail.com : Editor :
চুল পড়া স্থায়ী ভাবে বন্ধ করুন ঘরোয়া উপায়ে - নেত্র-আলাপন
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১২:১৮ পূর্বাহ্ন

চুল পড়া স্থায়ী ভাবে বন্ধ করুন ঘরোয়া উপায়ে

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ২২ Time View
চুল পড়া স্থায়ী ভাবে বন্ধ
ঘি এর উপকারিতা

চুল পড়া স্থায়ী ভাবে বন্ধ : প্রিয় পাঠক, চুল পুরুষ ও নারীদের সৌন্দর্য ও মহাগুরুত্বপূর্ণ মাথায় চুল। কিন্তুু এই চুল নিয়ে অনেকেই চিন্তিত। খুবই কম বয়সের মাথার চুল পড়ে যায় অনেকের। আমাদের ধারাবাহিক টিপস্ এন্ড ট্রিকস আয়োজনের আজকের পর্বে আমরা আলোচনা করবো মাথার চুল পড়া বন্ধ করার ঘরোয়া কিছু উপায়।

মাথার চুল একটি মানুষের প্রধান সৌন্দর্য। সকল মেয়েরা লম্বা চুল পছন্দ করে থাকে। তাদের চুল অনেক লম্বা ও ঘন করতে বিভিন্ন রকম ব্যবস্থা গ্রহণ করে থাকে। একজন মানুষের দৈনিক ৮০ হতে ১০০ টি চুল পড়লে সেটি স্বাভাবিক বলে ধরা হয়ে থাকে। যদি এই চুল পড়া আরও অধিক হয়ে যায় তাহলে সেটিকে চুল পড়া সমস্যা হিসেবে ধয়া হয়ে থাকে।। যখন দেখবেন বালিশের কভার বা গোসলের তোয়াতে যখন ঝড়ে পড়া চুলের আধিক্য দেখা যায় তখন চুলের পরিচর্যার অধিক মনোযোগী হতে হবে। কোনো কারণ ছাড়িই লম্বা চুল ঝরে পড়ে যায়।এতে নারী ও পুরুষরা মানসিক ভাবে দুশ্চিন্তা পড়ে যায়।

দ্রুত চুল পড়া বন্ধ করার জন্য অনেকেই অনেক কিছু ব্যবহার করেও সঠিক সমাধান পায় না। একবার চুল পড়া শুরু হলে সেটি বন্ধ করা খুবই কষ্টকর হয়ে যায়।চুল পাতলা বা পড়া শুরু করলে একটি নারীর যেমন সৌন্দর্য কমে তেমনি শারীরিক সমস্যার লক্ষণ বুঝা যায়। তবে চুল পড়া বন্ধ করার জন্য বাজার হতে নিম্নমানের কেমিক্যালযুক্ত ওষুধ চুল পড়া বন্ধ করার চেয়ে ক্ষতি করে থাকে বেশি।তাই আজ আমরা আলোচনা করবো কিছু ঘরোয়া পদ্ধতিতে কিভাবে আপনি সহজেই আপনার চুল পড়া বন্ধ করবেন।

কেন চুল পড়ে যায় আসুন জেনে নিইঃ-
অধিক চুল পড়ার পেছনে অনেকগুলো কারণ বিদ্যমান থাকে।এবার জেনে নেই কারণ গুলো
চুল পড়ার অন্যতম কারণ বংশগত,একটি নিদিষ্ট সময়ের পর নারী হোক বা পুরুষ তাদের চুল পড়ার লক্ষণ দেখা যায় এবং তার বংশের অধিকাংশ লোকেই ক্রমান্বয়ে এটি দেখা যায়।এটিকেই বংশগত কারণ বলা হয়।

নারীদের চুল পড়ার অন্যতম কারণ হরমোন পরিবর্তন। সাধারণ,নারীদের গর্ভাবস্থায়, প্রস্তাব ও অনিয়মিত মাসিক বা অতিরিক্ত জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি খেলে নারীদের চুল পড়া প্রকট ভাবে দেখা দেয়।অনেকসময় গর্ভকালীন সময়ের নারীদের শরীরের হরমোনের পরিবর্তন হওয়ার সন্তান জন্ম নেওয়ার পর অধিক সংখ্যক চুল উঠতে শুরু করে।এটি হলে বিশেষজ্ঞ কোনো ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়াই ভালো। অনেক সময় অনেকের অসুস্থ জনিত করানোর মাথার চুল পড়ে যায়। এছাড়াও মাথার ত্বকে বা চুলে সংক্রমিত হলে চুল ঝড়ে পড়ে যাওয়ার সম্ভবনা থাকে। ক্যানসার,রক্তচাপ সহ বিভিন্ন অসুখের কারণ বা অতিরিক্ত মানসিক চাপের কারণে দীর্ঘ দিন ওষুধ গ্রহণ করলে চুল পড়ার সম্ভবনা থাকে।

চুল পড়ার লক্ষণ সমূহ জেনে নিন
চুল পড়ার বৃদ্ধি পেলে কয়েকটি উপসর্গ আমাদের সামনে চোখে পড়ে।এই লক্ষণ গুলো সামনে এলেই বুঝবেন আপনার চুল পড়ার সমস্যা দেখা দিয়েছে।

মাথায় সামনের অংশে ও উপরের অংশে ধীরে ধীরে চুল কমতে শুরু করবে এবং চুল আঁচড়ানোর সময় মাথায় চিরুনিতে আঘাত অনুভূতি হবে।চুল পড়া আগের তুলনায় আরো পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে।মাথায় চুলের পাশাপাশি ভুরুর চুল বা চোখের পাতার চুলে সর্বত্রই চুল পড়া সমস্যা দেখা দিবে।মাথায় ত্বকে অধিক শুষ্কতা এবং খুশকির সমস্যা বেড়ে যাবে।

উপরোক্ত সমস্যা গুলো অধিক মাত্রায় দেখা দিলে চুলের যত্ন অধিক বেশি নেওয়া প্রয়োজন। ঘরোয়া উপায় অবলম্বনের পাশাপাশি বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

আসুন এবার জেনে কোনো কেমিক্যাল ব্যবহার না করেই ঘরোয়া পদ্ধতিতে চুল পড়া বন্ধ করার উপায়ঃ

নারিকেলের দুধ দিয়ে চুলে যত্নঃ- চুলের যত্নের স্বাভাবিক ভাবে সবাই ব্যবহার করে নারিকেল তেল।নারিকেলের সাথে দুধও কিন্তু অধিক উপকারী। চুল পড়া বন্ধ করার পাশাপাশি এটি চুল দ্রুত লম্বা করতেও সহয়তা করে।বিশেষ করে এটিতে কোনো কেমিক্যাল না থাকায় নিশ্চিতেই ব্যবহার করা যায়।চুলের ভিটামিনের ঘাটতি পূরন করে রক্ত সঞ্চালন অনেক গুণে বাড়ায় নারিকেল দুধ।

নিমপাতার ব্যবহারঃ চুল ও ত্বকের যত্নের নিমপাতার ব্যবহার অনেক আগের থেকেই।১০/১২ টি নিমপাতা ভেটে নারিকেল তেলের সাথে মিশিয়ে চুলে ব্যবহার করুন।তারপর আধাঘন্টা পর ধুয়ে ফেলুন।এটি নিয়মিত ব্যবহারের ফলে চুল ঝড়ে পড়া রোধ করে সাথে চুল লম্বা ও ত্বকের সমস্যা দূর করে।

মেথির ব্যবহারঃ- চুল পড়া রোধ করতে মেথির ব্যবহার প্রচলিত। লেবুর রসের সাথে মেথি ব্যবহার করলে চুল পড়া বন্ধ ও চুল লম্বা হতে সহয়তা করে।

আলু ও পেঁয়াজ মিশ্রণঃ- আলু ও পেঁয়াজ রস খুবই কাজে দেয় চুল পড়া রোধ করার জন্য। একটি আলু ও পেঁয়াজের রস বের করে মিশ্রণ তৈরি করুন। মিশ্রণটি হাতে নিয়ে চুলের গোড়ায় ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। ৩০ মিনিট পর ভেষজ শ্যাম্পু দিয়ে চুল পরিষ্কার করে ধুয়ে ফেলুন।
একটি আলু ও একটি পেঁয়াজ রস করে একসঙ্গে মেশান। মিশ্রণটি চুলের গোড়ায় লাগিয়ে রাখুন। ২০ মিনিট পর ভেষজ শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

এছাড়াও মেহেদী ভাটা,অ্যালোভেরা জেল,মেথি বীজ চুল ঝড়ে পড়া রোধে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

পাঠক, সাথায়ীভাবে চুল ঝড়ে পড়া বন্ধ করতে ঘরোয়া উপায় ব্যবহার করে সহজেই চুল পড়া রোধ করতে পারবেন। তাই নিয়মিত চুলের যত্ন নিন ও নিজের সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলুন।ধন্যবাদ।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 netroalapon.com
About Us |Privacy Policy | Sitemap  |Terms & Conditions
Theme Customized BY LatestNews